সোমালিয়াতেও জনপ্রিয় তুরস্কের রাষ্ট্রপতি এরদোয়ান

শুধু নিজের দেশেই নয় আফ্রিকার যুদ্ধবিধ্বস্ত দুর্ভিক্ষপীড়িত সোমালিয়াতেও ব্যাপক জনপ্রিয় তুরস্কের রাষ্ট্রপতি রেজেব তায়েপ বা রজব তাইয়েফ এরদোয়ান।
তিনি দীর্ঘদিন ইস্তানবুলের মেয়র থাকার পর ২০০২ সালে নির্বাচনে জিতে প্রধানমন্ত্রী হোন। ২০১৪ সালে রাষ্ট্রপতি হোন তিনি। নানা বিতর্ক থাকলেও তুরস্কে এখনো তিনিই নেতা হিসেবে সবচেয়ে এগিয়ে।

সোমালিয়ায় এরদোয়ানের জনপ্রিয়তার কারণ
এরদোয়ানের নেতৃত্বেই তুরস্ক সোমালিয়াতে ত্রাণকার্য চালায়। ২০১১ সালে নিরাপত্তাসংকটের মধ্যেও সেই দেশে নিজের পরিবার এবং বাণিজ্য সহযোগীদের নিয়ে সফর করেন। সেই সফর সোমালিয়ার দুর্ভিক্ষ ও গৃহযুদ্ধ পরিস্থিতি সম্পর্কে ওয়াকিবহাল মহলের দৃষ্টি নতুন করে আকর্ষণ করে। এরপরেই পশ্চিমা দেশগুলোর তুলনায় তুরস্কের গুরুত্ব সোমালিয়ায় বাড়তে থাকে। এমনকি জঙ্গিগোষ্ঠী আলশাবাব অধ্যুষিত অঞ্চলেও প্রভাব পড়ে।
এরপরেও এরদোয়ান সোমালিয়া সফরে যান। সোমালি রাজধানি মোগাদিশুতে ভয়াবহ বিস্ফোরণের পরেও তিনি সফর বাতিল করেন নি। তুরস্ক সোমালিয়ার বিবাদমান সশস্ত্রপক্ষগুলির ব্যাপারে কোন পক্ষপাতিত্ব না করায় জনপ্রিয়তা আরো বেড়েছে।
তুরস্ক ত্রাণের টাকায় সোমালিয়াতে স্কুল, কলেজ, হাসপাতাল, রাস্তা এমনকি বাণিজ্যিক কার্যকলাপও গড়ে উঠেছে। যা তুর্কি মডেল নামে খ্যাতি পেয়েছে। এরফলে ত্রাণকার্যগুলিতে দুর্নীতি অনেক কমে গেছে।
বর্তমানে সোমালিয়া এখনো সংকট মুক্ত হয়নি। সোমালিল্যাণ্ড, পান্টল্যাণ্ড প্রভৃতি বিচ্ছিন্নতাবাদী আন্দোলন আর আলশাবাব জাতীয় জঙ্গিগোষ্ঠীর দাপট অব্যহত। দুর্ভিক্ষের বিভীষিকা আবার বিরাজমান। এই পরিস্থিতিতে তুর্কি মডেল আবার কোন কার্যকরী ভূমিকা নেয় কিনা সেটাই দেখার।

Please follow and like us:

2 thoughts on “সোমালিয়াতেও জনপ্রিয় তুরস্কের রাষ্ট্রপতি এরদোয়ান

    1. আলহামদুলিললাহ আল্লাহ এরদোগানের
      হায়াত বাড়িয়ে দাও আমিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *