সংরক্ষণের ভ্রান্ত তথ্য দিয়ে মুসলিম তোষনের মিথকে মজবুত করছে মেইনস্ট্রিম মিডিয়াও

ইনকিলাব ডেস্কঃ

গত সপ্তাহে এই সময় পত্রিকায় “দলিত ভোটের মেরুকরণ মমতার ওবিসি ব্যাঙ্কে থাবা” শিরোনামে এক খবর প্রকাশিত হয়।যেখানে বলা হয়

“সংরক্ষণ চালু করে মুসলিমদের চাকরি ও শিক্ষায় সংরক্ষণের সুযোগ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত ছিল বিগত বাম সরকারের৷ মমতা ক্ষমতায় আসার পর দ্রুত মুসলিমদের বিভিন্ন গোষ্ঠীকে ওবিসি তালিকাভুক্ত করে নেওয়া হয়েছে৷ এই সংরক্ষণের সুযোগ নিয়েই এ বছর এমবিবিএসে প্রায় ৪০০ আসনে মুসলিম ছেলেমেয়েরা ভর্তির সুযোগ পেয়েছে।”
http://www.epaper.eisamay.com/Details.aspx?id=31123&boxid=14752284

অথচ সরকারি পরিসংখ্যান মোতাবেক রাজ্যে ওবিসি সিটের পরিমান ১৮১ টি।এর মধ্যে ওবিসি এ ১০৫টি ও ওবিসি বি ৭৬টি। উল্লেখ্য এর মধ্যে হিন্দু ওবিসিও আছেন।
ShowPdf (2)

এই সময় পত্রিকার দপ্তরে যোগাযোগ করা হলে বলা হয় তারা এই তথ্য একটা বেসরকারি সংখ্যালঘু প্রতিষ্ঠান থেকে পেয়েছেন। সরকারি ওয়েবসাইটে সিট ম্যাট্রিক্স পরিষ্কার ভাবে দেয়া সত্ত্বেও কেন তিনি বেসরকারি সোর্সের ভুল তথ্য দিলেন সেটার কোন সদুত্তর তিনি দিতে পারেননি।

উল্লেখ্য এসসি ও এসটির মধ্যে মুসলমানদের কোন জনগোষ্ঠীই নেই,কিন্তু ওবিসির মধ্যে ৬০টি হিন্দু জনগোষ্ঠীভুক্ত মানুষও আছেন।

সংখ্যালঘু তোষণের অজুহাতে মমতা ব্যানার্জির সরকারকে যখন চাপে ফেলার চেষ্টা করছে বিজেপি, তখন মেইনস্ট্রিম মিডিয়ারও এই ধরণের কিছু বিভ্রান্তিকর তথ্য তাতে আরো অক্সিজেন জোগাচ্ছে।এই প্রোপাগান্ডার স্বীকার হচ্ছে সাধারন মানুষও যারা আদৌ কোন রাজনৈতিক দলের সদস্যই নয়।ফলস্বরূপ রাজ্যে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির পরিবেশ অনেকটাই কলুষিত হচ্ছে।

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *